বুধবার, ২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

পুলিশের সামনে চিকিৎসককে চড়, ভাইরাল হলো সেই ভিডিও

দৈনিক ঘোষণা :
ফেব্রুয়ারি ২০, ২০২০
news-image

ঘোষণা ডেস্ক : পুলিশের সামনে হাসপাতালের ভেতর চিকিৎসককে চড় মারার অভিযোগ উঠেছে।

আজ বৃহস্পতিবার ভারতের কলকাতার সিএমআরআই হাসপাতালে পিঙ্কি ভট্টাচার্য নামের এক প্রসূতির মৃত্যুর পর এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয় পড়েছে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি’র প্রতিবেদনে বলা হয়, গতকাল বুধবার সিএমআরআই হাসপাতালে সন্তানের জন্ম দিয়েছিলেন ওই প্রসূতি। তারপর থেকে মা ও সন্তান স্বাভাবিকই ছিল।

নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়, আজ ভোরে হাসপাতাল থেকে জরুরি ফোন পান তারা। সেই ফোনের পর হাসপাতালে গিয়ে তারা জানতে পারেন, সেই প্রসূতির মৃত্যু হয়েছে। এ বিষয়ে নিহতের স্বজনদের সঙ্গে সকাল ৯টার দিকে হাসপাতালের দেখা করতে যান স্ত্রী-রোগ বিশেষজ্ঞ বাসব মুখোপাধ্যায়। এ সময় নিহতের স্বামী তাপেন ভট্টাচার্য উত্তেজিত হয়ে পুলিশের সামনেই সেই চিকিৎসককে চড় মারেন। ওই ঘটনাটি ধরা পড়ে সেখানকার সিসিটিভিতে।

নিহতের পরিবারের অভিযোগ, ঘুমের ওষুধের অতিরিক্ত ডোজের জন্যই মৃত্যু হয়েছে পিঙ্কি ভট্টাচার্যের।

তবে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ পাল্টা দাবি করে, বারবার যোগাযোগ করা হলেও রোগীর পরিবারের লোকজন অনেক পরে হাসপাতালে আসেন। এ সময়ে উপস্থিত ছিলেন চিকিত্সক। বিনা প্ররোচনায় পরিবারের লোকজন তার ওপর চড়াও হন।

হাসপাতাল থেকে প্রতাশিত ওই সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যায়, মৃতার পরিবারের উত্তেজিত আত্মীয়দের সঙ্গে কথা বলছেন চিকিৎসক বাসব মুখোপাধ্যায়। এ সময় কথা বলার মাঝখানে সোফায় বসে থাকা প্রসূতির স্বামী তাপেন ভট্টাচার্য উঠে গিয়ে চিকিৎকের গালে চড় মারেন।

চিকিৎসককে চড় মারার ঘটনা প্রসঙ্গে এসএসকেএম’র রোগীকল্যাণ সমিতির চেয়ারম্যান নির্মল মাজি বলেন, ‘এভাবে প্রকাশ্যে কর্মরত চিকিৎসকের ওপর চড় মারা থেকে শুরু করে সংঘবদ্ধভাবে হামলা, এ জিনিস কোনো সভ্য সমাজের মানুষ মেনে নিতে পারে না। আমি এর তীব্র নিন্দা করছি। ধিক্কার জানাচ্ছি। প্রকৃত দোষীর সিসিটিভি ফুটেজ রয়েছে, পুলিশের উপস্থিত রয়েছে। প্রকৃত দোষীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাইছি।’

এস এ আখি

এ রকমের আরও খবর